Others

বাড্ডায় ছেলে ধরার অপরাধে নারীকে পিটিয়ে হত্যার মূল আসামী গ্রেফতার

No ratings yet.

Please rate this

বাড্ডায় এক হতভাগ্য নারীক  ছেলে ধরার অপরাধে গনপিটুনিতে হত্যা করা হয়েছে । পরিষেশে জানা যায় এই অপরাধের সাথে সেই নারীর কোন সম্পর্ক ছিল না । কিন্তু এই হতভাগ্য নারী তাদের গনপিটুনিতে মারা যান । বাড্ডায়  মেয়েকে ভর্তির জন্য এসে নিজের প্রান হারালো । ঔ নারীকে গনপিটুনির সিসি ক্যামেরার ধারনকৃত ভিডিও ফুটেজ রয়েছে । যা থেকে জানা যাবে কারা এই ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে । কারা নির্মমভাবে এই হতভাগ্য নরীকে হত্যা করেছে তরা সঠিক তথ্য জানা যাবে । অতিরিক্ত আঘাতে সহ্য না করতে পেরে তার মৃত্যু হয় ।

এই ঘটনায় প্রায় 600 জনেরও বেশী ব্যক্তিদের জন্য মামলা করা হয়েছে । নির্দোশ সেই মহিলাকে নির্মমভাবে হত্যা করার জন্য সকলকে আইনের আশ্রয়ে আনা হবে । এই ঘটনার মূল আসামীকে নারায়নগঞ্জ  থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে । এই ঘটনায় জড়িত 6 জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে । মূল আসামী রূদয়কে গেয়েন্দা পুলিশ গ্রেফতার করেছে । ঔই নারীকে স্কুলের সামনে পিটিয়ে হত্যা করেছে । এই হত্যায় যারা জড়িত তাদের সবাইকে ধরা হবে ।

ঊত্তর বাড্ডায় রূদয় একজন সবজি বিক্রেতা ছিলেন । তিনি ওখানে সবজি বিক্রি করতেন রীতিমত । তাসলিমাকে গনপিটুনিতে মারার পর তাকে আর দেখা যায় নাই । তার সবজির দোকান বন্ধ ছিল । অতঃপর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) রূদয়কে গ্রেফতার করতে সফল হয়েছে । আরও ছয় জন আটক হয়েছে । রূদয়সহ মোট সাত জনকে আটক করেছে পুলিশ । কাউকে ছাড় দেয়া হবে না ।

সিসিটিভি ফুটেজে থেকে জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে । কারণ সিসিটিভি ফুটেজে সকলের ভিডিও রয়েছে । ফুটেজ দেখে সবাইকে আটক করা হবে । আটককৃত সবাই ঊত্তর বাড্ডার বাসিন্দা । এই ঘটনার পর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলে ধরার ঘটনা অহরহ চলে আসছে । তাসলিমাকে মারার পর তার পরিবার থেকে জানা যায় তিনি মেয়েকে ভর্তি করার উদ্দেশ্যে স্কুলে গিয়েছিল । এর মধ্যেই তসলিমাকে পিটিয়ে মারা হয় ।